1. mehedi22h@gmail.com : admin :
  2. ibrahimkholil607@gmail.com : Ibrahim Hossain : Ibrahim Hossain
  3. rejoanullah668@gmail.com : rejoan ullah : rejoan ullah
শিরোনাম :
বাঘের শিকারে দুইজন মৎস্যজীবি,ফিরে এলেন মুসা সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন এর মায়ের মৃত্যুতে নিউজ সাতক্ষীরা পরিবারের শোক জ্ঞাপন ভূমিহীন পরিবারের জমিসহ বাসগৃহ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী কলারোয়ায় ফেনসিডিলসহ আটক ২ কলারোয়া পৌরসভা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন পরপর ২বারেরর মেয়র প্রার্থী আক্তারুল ইসলাম জনতার মুখোমুখি হলেন কলারোয়া পৌরসভার ৫ মেয়র প্রার্থী সাতক্ষীরা’র হিজড়া সম্প্রদায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কলারোয়া উপজেলায় পরিবেশ উন্নয়ন শিখন কেন্দ্র স্হাপন প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন গোলাম রব্বানী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মজনু চৌধুরি দল থেকে বহিস্কার

১৫০ টাকার লটারিতে রাতারাতি কোটিপতি শ্রমিক

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৪ বার

ভারতে ১৫০ টাকা দিয়ে লটারি কিনে রাতারাতি ভাগ্যবদল করলেন মালবাজারের এক শ্রমিক। এই ঘটনায় যেমন এলাকায়

হৈ চৈ শুরু হয়েছে তেমনি ওই শ্রমিকের পরিবারও আনন্দে আত্মহারা। তাকে দেখতে অনেকেই আসছেন তার বাড়িতে।

পড়শিদের অনেকে তার নিরাপত্তার কথা ভেবে তাকে পাহারা দিচ্ছেন। খবর ভারতীয় গণমাধ্যমেরপ্রতিবেদনে দেখা যায়, রাতারাতি কোটিপতি হয়ে যাওয়া ওই শ্রমিকের নাম বলবাহাদুর রাই। সে মালবাজার তিস্তার তীরে অবস্থিত তত্ত্বজ্ঞও গ্রামের

বাসিন্দা। রোববার (২২ নভেম্বর) রাতে তিনি লটারি জেতার খবর জানতে পারেন। তার লটারি জেতার খবর শুনে এলাকায়

রীতিমতো হইচই পড়ে যায়। তাকে দেখতে অনেকে তার বাড়িতে আসে বলে প্রতিবেদনে উঠে আসে। বলবাহাদুর রাতে লটারি জেতার খবর পাওয়ার পর তিনি রাতে আর ঘুমাতে পারেননি। তার নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে এলাকার কিছু যুবক তাকে অন্য যায়গায় নিয়ে যায়। তিনি সেখানেই রাত কাটান।

লটারি কেনার কারণ কি সে ব্যাপারে বলবাহাদুর রাই বলেন, ‘আমি দৈনিক ১৭০ টাকা আয় করি। স্বপ্নেও ভাবিনি কোনোদিন কোটিপতি হয়ে যাব। এমনিতেই কি মনে হল ১৫০ টাকা দিয়ে টিকিটটা কিনেছিলাম।’

লটারির টাকা তিস্তার হাত থেকে কৃষি জমি রক্ষার্থে খরচ করবেন উল্লেখ করে বলবাহাদুর বলেন, ‘লটারিতে প্রাপ্ত টাকার কিছু দিয়ে তিস্তা নদীর হাত থেকে কৃষি জমি রক্ষার্থে বাঁধের জালির খরচা দেব।’ কোটিপতি শ্রমিকের এই উদ্যোগকে স্থানীয়রা সাধুবাদ জানিয়েছেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2019 news satkhira
Site Customized By NewsTech.Com