1. mehedi22h@gmail.com : admin :
  2. ibrahimkholil607@gmail.com : Ibrahim Hossain : Ibrahim Hossain
  3. rejoanullah668@gmail.com : rejoan ullah : rejoan ullah
শিরোনাম :
কলারোয়ায় একটি ভাঙ্গাড়ী দোকানে অগ্নিককান্ড ২০০ টাকার জন্য খুন করেছি সাতক্ষীরার কলারোয়ার বালিয়াডাঙ্গা বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড।। ৬টি দোকান পুড়ে ছাই সাতক্ষীরায় বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন শহরের কাটিয়া মাঠপাড়ায় মাস্কহীন দু’জনকে মোবাইল কোর্টে ১ হাজার টাকা জরিমানা করোনার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন সাতক্ষীরা’র দুই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শ্যামনগরে হরিণের চামড়া উদ্ধার জামায়াতের সাবেক আমির মকবুল আহমাদের অবস্থা সংকটাপন্ন মামুনুলকে ছিনিয়ে নিল হেফাজত কর্মীরা নারায়ণগঞ্জে রিসোর্টে ‘দ্বিতীয় স্ত্রী’সহ অবরুদ্ধ মাওলানা মামুনুল সোনারগাঁও এ মামুনুল হক কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে

শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা:আদালতে সাক্ষ্য দিলেন আরো ৩ জন

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৪৫ বার


ডেক্স রির্পোটঃ বিরোধী দলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা মামলায় দুই সাংবাদিক ও এক বাস চালক আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) সাতক্ষীরার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবির সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরী, সাংবাদিক হাবিবুর রহমান ও বাসচালক মো. নজিবুল্লাহ’র সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।
সরকারপক্ষে এই মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনীর, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সুজিত কুমার চ্যাটার্জী, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হাশেম আলী সরদার ও সাতক্ষীরা জজ আদালতের পিপি অ্যাড. আব্দুল লতিফ। আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাড. আব্দুল মজিদ এবং অ্যাড. মিজানুর রহমান পিন্টু।
আদালত সূত্র জানায়, ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা শেখ হাসিনা সাতক্ষীরার কলারোয়ার হিজলদী গ্রামে গণধর্ষণের শিকার এক নারীকে দেখতে আসেন। এরপর তিনি একটি পথসভায় ভাষণ শেষে সাতক্ষীরা থেকে কলারোয়া হয়ে মাগুরা অভিমুখে রওনা হন। কলারোয়া বাজারে পৌঁছানোর পর তার গাড়িবহরে হামলা ও গুলির ঘটনা ঘটে। এতে তিনি অক্ষত থাকলেও তার সফরসঙ্গী কয়েকজন আহত হন।
এ ঘটনা নিয়ে কলারোয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসলেম উদ্দিন ২৭ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেন।
অপরদিকে, সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনায় সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরী কলারোয়া থানায় একটি জিডি করেন।
বীর মুক্তিযোদ্ধা মোসলেম উদ্দিনের মামলাটি কয়েক দফা খারিজ হয়ে যাবার পর ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর পুনরুজ্জীবিত হয়। পুলিশ ফের তদন্ত করে বিএনপির সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ৫০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দেয়। চলমান এই মামলায় বর্তমানে সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে। আজ নিয়ে মোট ১৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনীর গণমাধ্যমকে জানান, তারা সাতক্ষীরার সরকারপক্ষের উকিলকে সহায়তা করতে ঢাকা থেকে এসেছেন। আগামী ৩ মাসের মধ্যে মামলাটি নিষ্পত্তি হবার কথা রয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2019 news satkhira
Site Customized By NewsTech.Com